• রবি. জানু ২৪, ২০২১

ই-মোবাইল কোর্টে তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন বন্ধে কাজ করছে জান্নাতি মহিলা উন্নয়ন সমিতি

ডিসে ১, ২০২০

হাফিজুর রহমান হৃদয়, নাগেশ্বরী:
ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ (ডাব্লিউবিবি) এর উদ্যোগে কুড়িগ্রামের নাগেশ^রীতে জান্নাতি মহিলা উন্নয়ন সমিতির কার্যক্রম এগিয়ে চলছে ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ (ডাব্লিউবিবি) ট্রাস্ট ধুমপান বিরোধী ও তামাক উৎপাদন বিরোধে ই-মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি । কোম্পানীর সুস্পষ্ট লংঘন। এভাবে নিয়মভঙ্গ বিজ্ঞাপন বদ্ধ ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্থবায়নের লক্ষ্যে জেলা প্রসাশক বরাবর বিজ্ঞাপন প্রদর্শনে অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। বৃহষ্পতিবার দি ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ তামাক বিরোধী জোটের সার্বিক সহযোগিতায় এবং কুড়িগ্রামের নাগেশ^রী উপজেলার হাসনাবাদ জান্নাতি মহিলা সমিতির উদ্যোগে বাস্তবায়নে এই কার্যক্রম ই মোবাইল কোর্টে বাস্তাবায়ন করা হয়। একসসে টু ইনফরমশেন (এটুআই) প্রোগ্রাম ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণ তথা রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে সরকার নানা মুখি কাজ করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০০৫ এ তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে দেখা গেছে। যা জনকল্যাণে প্রণীত ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন এর ৫ ধারায় হতে থাকলে প্রধানমন্ত্রীর লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা ২০৪০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে ধূমপান মুক্ত ঘোষণা করা বাধা গ্রস্ত হবে। নাগেশ^রী উপজেলার ভিতরবন্দ, নুনখাওয়া, ব্যাপারীহাট, কাছারী পায়রাডাঙ্গা, কলেজ মোড়, নাগেশ^রী পুরাতন বাজার, এসব এলাকায় ইতোমধ্যে জান্নাতি মহিলা উন্নয়ন সমিতির সভাপতি মোছা. ফাতেমা বেগম, কাজ করে যাচ্ছে। তামাকজাত দ্রব্যের অবৈধ বিজ্ঞাপনের মধ্যে ব্যানার পোস্টার স্টিকার ফ্ললোয়ার উইন্ডো এগুলি কমন বিজ্ঞাপণ হিসাবে দেখা যাচ্ছে। এর সাথে বিলবোর্ড ক্যাশবাক্স প্রমোশনাল স্টিকারসহ প্রায় ১৮ ধরণের বিজ্ঞাপন প্রচার করছে। এই অবৈধ বিজ্ঞাপন ব্যবহারের মাধ্যমে তামাক কোম্পানীসমূহ প্রধানত কিশোর ও যুব সমাজকে টার্গেট করছে। তার মধ্যে তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার বিশেষ করে সিগারেট সেবনের প্রতি আগ্রহী করে তুলছে যা আমাদের যুব সমাজকে তামাকের কালো থাবায় উৎসাহিত করছে। যাতে প্রশাসন অন্ততঃপক্ষে ধূমপান ও তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে তামাকের এই অবৈধ বিজ্ঞাপন বন্ধে জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেন এটাই জান্নাতি মহিলা উন্নয়ন সমিতির প্রত্যাশা।