• রবি. অক্টো ২৫, ২০২০

মানবতার ফেরিওয়ালা ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম

সেপ্টে ২৪, ২০২০

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : 
মানবতার ফেরিওয়ালা ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম।একদিকে করোনা আরদিকে চলছে আশ্বীন অভাব অনটনের  মাস। কয়েকদিন থেকেই ঠাকুরগাঁওয়ে ঝড়ছে একটানা বৃষ্টি। আর এই বৃষ্টির মধ্যে সড়কের পাশে হাঁটু গেড়ে মাটিতে বসে আছেন মানষিকভাবে ভারসাম্যহীন রফিক নামে এক ব্যক্তি। বৃষ্টিতে ভিজে তার শরীর থরথর করে কাঁপছে। ওসি তানভিরুল ইসলাম বৃষ্টিতে ভেজা সেই লোকটি দেখে গাড়ি থামালেন। এরপর রফিককে বৃষ্টি থেকে উঠিয়ে শুকনো জায়গায় নিয়ে গিয়ে তার পরিচর্যায় ব্যস্ত হয়ে পড়লেন ওসি তানভিরুল ইসলাম।
গত মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে শহরের শহীদ মোহাম্মদ আলী সড়কে এমনি একটি মানবিক কাজে এগিয়ে আসেন ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম। 
সরেজমিনে দেখা যায়, দুপুরে গাড়ি নিয়ে শহীদ মোহাম্মদ আলী সড়ক ধরে কালিবাড়ি বাজারে যাচ্ছিলেন ওসি তানভিরুল ইসলাম। সড়কের পাশে বৃষ্টিতে ভিজে থরথর করে কাঁপা রফিককে দেখতে পেয়ে গাড়ি থামান ওসি। এরপর অসহায় রফিককে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও টি স্টলে নিয়ে যান তিনি। সেখানে এক কাপ চা খাওয়ান রফিককে। এরপর শহরের চৌরাস্তা মোড়ের একটি কাপড়ের শোরুম থেকে নতুন একটি লুঙ্গি ও টিশার্ট কিনে এনে রফিককে নিজ হাতে পড়িয়ে দেন ওসি। নতুন কাপড় পড়িয়ে রফিকে নিয়ে যাওয়া হয় একটি সেলুনে, সেখানে রফিকের চুল দাড়ি কাটিয়ে তাকে বাড়িতে পৌঁছে দেন ওসি তানভিরুল ইসলাম। 
মানষিকভাবে ভারসাম্যহীন রফিকের বাড়ি ঠাকুরগাঁও শহরের শাহপাড়া এলাকায়। 
স্থানীয় বাসিন্দা আলমগীর হোসেন বলেন, রফিক দরিদ্র ঘরের সন্তান। তার বাবা একজন দিনমজুর। রফিক একটি হোমিও দোকানে চাকুরি করত। ভালই দিন যাচ্ছিল তার। হঠাৎ করেই সে মানষিক ভারসাম্যহীণ হয়ে পড়ে। এরপর থেকে সে পথে পথে ঘুরে বেড়ায়। আরও অনেকের  মুখে এরকম কথা বলেন পুলিশ যদি মানুষের সহযোগিতা করেন তাহলে পুলিশকে অনেকেই মনথেকে ভালোচোখে দেখবেন । পুলিশের এমন ভূমিকার প্রশংসা করে শহরের আশ্রমপাড়া এলাকার বাসিন্দা নাহিদ রহমান আকাশ বলেন, পুলিশের মন্দ দিকগুলোই আমরা দেখি। পুলিশ ভাল কাজও করে। তার প্রমাণ দিলেন ওসি তানভিরুল ইসলাম। 
কালিবাড়ি এলাকার জিহাদুল ইসলাম বলেন, ওসির মানবিকতায় আমরা মুগ্ধ। তিনি ভাল কাজ করেছেন। এ জন্য অন্তর থেকে তার প্রতি ভালবাসা জানাই। সেই সাথে মানষিকভাবে ভারসাম্যহীন রফিকের সুস্থতা কামনা করছি। 
ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম বলেন, দোষ-গুণের সমন্বয়েই মানুষ। দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আমি চেষ্টা করি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। যাই হোক, ভাল একটি কাজ করতে পেরে অত্যন্ত ভাল লাগছে। আর এ ভাললাগা আরেকটি ভাল কাজে উৎসাহিত যোগাবে। আমার মত করে অসহায় মানুষদের পাশে সমাজের সকল মানুষদের এগিয়ে আসার অনুরোধ করছি।