• বৃহঃ. অক্টো ২২, ২০২০

সেনবাগে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ইউপি সদস্যসহ গ্রেপ্তার ৫

সেপ্টে ১২, ২০২০

নোয়াখালীর সেনবাগে এক গৃহবধূকে (৩২) গণধর্ষণের অভিযোগে ইউপি সদস্যসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে ১১ জনকে আসামি করে নির্যাতিতা বাদি হয়ে সেনবাগ থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের ইউপি সদস্য ছিদ্দিক এবং ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত স্থানীয় দিদার, গফুর ও সেলিম, আলমগীর।

থানা সূত্রে জানা যায়, গত ৭-৮ দিন পূর্বে ওই গৃহবধূ পারিবারিক কলহের কারণে রাগ করে কোম্পানীগঞ্জস্থ তার বাবার বাড়ি চলে যান। পরে ৫ সেপ্টেম্বর তার স্বামীর বন্ধু দিদারকে বিষয়টি জানাতে ফেনীতে যান ওই নারী।

এক পর্যায়ে সেনবাগে তার স্বামীর বাড়িতে পৌঁছে দেবার কথা বলে দিদার জোরপূর্বক ওই গৃহবধূকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে আরো তিন জনসহ ধর্ষণ করে। পরদিন ওই নারী বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য ছিদ্দিককে জানালে ইউপি সদস্যসহ সালিশদাররা উল্টো ওই নারীকে খারাপ আখ্যা দিয়ে মারধর করে পুনরায় বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। বৃহস্পতিবার রাতে গৃহবধূ বিষয়টি সেনবাগ থানায় অবহিত করলে পুলিশ রাতেই ইউপি সদস্যসহ ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত দিদার ও তার বন্ধুদের আটক করে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন সেনবাগ থানার ওসি আবদুল বাতেন মৃধা জানান, গতকাল রাতে গৃহবধূ ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা করলে অভিযুক্ত পাঁচজনকে পুলিশ গ্রেফতার করে। অপর অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানান ওসি।