• শুক্র. জুলা ১, ২০২২

সাভার মডেল থানায় কর্মরত কনস্টেবল জাহিদুল ইসলাম রনি (২৭)। বাবার নাম মো. জসিম উদ্দিন। জাহিদুলের বন্ধু হিমেল মিয়া জানান, তিনি যাত্রাবাড়ী এলাকায় থাকেন। আর জাহিদুল থাকতেন সাভারে। রাতে জাহিদুলের সঙ্গে তার যোগাযোগ হয় এবং তখন তারা সিদ্ধান্ত নেন মাওয়া ঘাটে গিয়ে সেহরি খাবেন। এ জন্যই তারা চার বন্ধু মিলে ২টি মোটরসাইকেলে করে মাওয়া ঘাটের দিকে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে জাহিদুল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলসহ ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। তবে তার মোটরসাইকেলের পেছনে বসে থাকা বন্ধু কাউসার (২৬) সামান্য আহত হন। তখন অন্য বন্ধুরা তাদের দুজনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানেই রাত ২টার দিকে চিকিৎসকরা জাহিদুলকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্যদিকে আহত কাউসারকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। রবিবার (১৭ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত জাহিদুলের বাড়ি নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায়।

মৃত জাহিদুলের শ্বশুর ফেরদাউস ভূঁইয়া জানান, পাঁচ বছর আগে তার মেয়েকে বিয়ে করেছিলেন জাহিদুল। স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে সাভার থানার পাশেই থাকতেন।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়া দুঃখ প্রকাশ করে জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে এবং অনতিবিলম্ব মরদেহ তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে।