• রবি. জুন ২৬, ২০২২

রমজানের আগেই চড়া নিত্যপণ্যের বাজার

মার্চ ২৬, ২০২২

রমজানের আগেই বেড়েছে মুরগী, মশুর ডাল, ছোলা, চিনি ও বেসনের দাম।। তবে সপ্তাহের ব্যবধানে কিছুটা সুলভ হয়েছে ডিম। এদিকে, আগের মতো চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে ভোজ্যতেল।

সরকারিভাবে ভোজ্যতেলের দাম কমানোর ঘোষণা হলেও তেমন কোন প্রভাব দেখা যায়নি রাজধানীর খুচরা বাজারে। আগের মতো চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে। নতুন মূল্যের পণ্য এখনো ঠিকমতো বাজারে আসেনি বলে তেলের দাম কমছে না বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা।

এদিকে রাজধানীর বাজার গুলোত বেড়েছে মশুর ডাল, ছোলা, চিনি ও বেসনের দাম। প্রতি কেজি দেশি মশুর ডাল বিক্রি হচ্ছে ১২৫ থেকে ১৩০ টাকায়। দেশি ও আমদানি করা সব ধরনের চিনিই বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে ১০০ টাকা। ছোলার কেজি ৮০ টাকা এবং বেসন মানভেদে ৮০ থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়াও মুরগীর বাজারেও স্বস্তি মিলছে না ক্রেতাদের। সোনালী মুরগী ৩৪০ থেকে ৩৫০ টাকা কেজি আর ব্রয়লার বিক্রি হচ্ছে ১৭০ টাকা দরে। তবে গত সপ্তাহের তুলনায় ৫ টাকা কমে ফার্মের মুরগির ডিম বিক্রি হচ্ছে ডজন ১০০ থেকে ১০৫ টাকা।

এদিকে সোমবার মিল মালিকদের সঙ্গে বৈঠকে সয়াবিন তেল ১ লিটারের বোতল ১৬০ টাকা এবং ৫ লিটারের ৭৬০ টাকা নির্ধারণ করে সরকার। খোলা তেলের দাম ধার্য্য হয় ১৩৬ টাকা লিটার। কিন্তু ৪ দিন পরেও এর তেমন প্রভাব দেখা যায়নি খুচরা বাজারে।

রাজধানীর কারওয়ান বাজার, হাতিরপুলসহ বেশিরভাগ বাজারেই তেল বিক্রি হচ্ছে আগের দামে। বিশেষ করে ১ ও ২ লিটারের বোতলে দাম কমেনি। নতুন মূল্যের তেল সরবরাহ এখনও পুরোপুরি শুরু হয়নি, বলছেন বিক্রেতারা।