• অক্টোবর ২, ২০২২ ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ

ভূরুঙ্গামারীতে সাংবাদিক পরিচয়ে প্রতারণা

সেপ্টে ৩, ২০২২

ভূরুঙ্গামারী প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে আনোয়ার হোসেন আরিফ নামের এক যুবক ও তার কয়েক সহযোগীর বিরুদ্ধে সাংবাদিক পরিচয়ে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেন আরিফের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বিভিন্ন দপ্তর অভিযোগ ও আদালতে মামলা করেছেন ভুক্তভোগীরা। আনোয়ার হোসেন আরিফ উপজেলার চরভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নের হুচারবালা গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে।
গত ৩০ আগষ্ট আনোয়ারের বিরুদ্ধে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সুপারের নিকট লিখিত অভিযোগ করেছেন কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার রাজু মোস্তাফিজ। এছাড়া গত বৃহস্পতিবার ১ সেপ্টেম্বর ভূরুঙ্গামারী উপজেলার আন্ধারীঝাড় ইউপি চেয়ারম্যান জাবেদ আলী মন্ডল আনোয়ারের বিরুদ্ধে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত অভিযোগ করেছেন।
জানা গেছে, গত ২৪ শে আগষ্ট বুধবার দুপুরে আন্ধারীঝাড় ইউনিয়নের খামার আন্ধারীঝাড়ে ফুলকুমার নদ হতে বালু উত্তোলনের খবর পেয়ে আন্ধারীঝাড় ইউপি চেয়ারম্যান জাবেদ আলী মন্ডলের কার্যালয়ে যায় আনোয়ার হোসেন আরিফ সহ কয়েকজন। সেখানে গিয়ে তারা চেয়ারম্যানের নিকট মোটা অংকের টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে সংবাদ প্রকাশ করার ভয় ভীতি দেখায়। এতে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়।
এঘটনায় জাবেদ আলীকে হেনস্তা করতে আনোয়ার হোসেন আরিফ নিজেকে দৈনিক জনকন্ঠ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি দাবী করে ভূরুঙ্গামারী থানাসহ বিভিন্ন দপ্তরে চেয়ারম্যান জাবেদ আলী মন্ডলের বিরুদ্ধে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ দায়ের করে। দৈনিক জনকন্ঠ পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয়ে অভিযোগ দায়ের করার বিষয়টি কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি ও জনকণ্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার রাজু মোস্তাফিজের নজরে এলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তিনি কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সুপারের নিকট আনোয়ারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।
কিছুদিন আগে আনোয়ারের বিরুদ্ধে চাকুরী পাইয়ে দেবার আশ্বাসে উপজেলার বঙ্গ সোনাহাট ইউনিয়নের গনাইরকুটি গ্রামের সুলতান মাহমুদ নামের এক ব্যক্তির নিকট থেকে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কুড়িগ্রাম সিনিয়ার জুডিশিয়াল ম্যজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা (৪৫/২২ ভূরুঙ্গা) হয়েছে। এছাড়াও ভূরুঙ্গামারীর এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে মিথ্যা ও বনোয়াট তথ্য ছড়ানোর জন্য আনোয়ারের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে রংপুর সাইবার ট্রাাইব্যুনালে একটি মামলা করেছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক। যা ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন রয়েছে।
আন্ধারীঝাড় ইউপি চেয়ারম্যান জাবেদ আলী মন্ডল বলেন, সংবাদ প্রকাশ করার হুমকি দিয়ে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে আনোয়ার ও তার বাহিনী। চাঁদা না পেয়ে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে তারা নামসর্বস্ব নিউজ পোর্টালে আমার নামে অপপ্রচার করছে। তাদের নামে জেলা প্রশাসক ও ভূরুঙ্গামারী থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক জনকন্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার রাকু মোস্তাফিজ বলেন, সাংবাদিক পরিচয়ে কেউ অপসাংবাদিকতা করে প্রকৃত সাংবাদিকদের সম্মান ক্ষুন্ন করবে সেটা মেনে নেয়া যায়না। আনোয়ার হোসেন সহ অপসাংবাদিকতায় জড়িত সকলকে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান তিনি।
ভূরুঙ্গামারী-কচাকাটা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মোরশেদুল হাসান বলেন, আনোয়ার হোসেনের নামে ওঠা অভিযোগ সম্পর্কে অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন প্রেরণ করা হবে।