• অক্টোবর ২, ২০২২ ১০:১২ পূর্বাহ্ণ

ফুলবাড়ীতে একটি মাদ্রাসার ৭জন শিক্ষার্থী ফরম ফিলাপ করেও পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেনি

সেপ্টে ১৭, ২০২২

ফুলবাড়ী প্রতিনিধি:
দাখিল পরীক্ষায় দেয়ার জন্য কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার একটি মাদ্রাসার ৭জন শিক্ষার্থী ফরম ফিলাপ করেও চলতি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেনি এক জনও । কেন্দ্র সচিব ওই মাদ্রাসার সুপারকে অবগত করেও পায়নি কোন শিক্ষার্থী। দুইটি পরীক্ষা অতিবাহিত হলে কেউই যোগাযোগ করেনি কেন্দ্রে। তবে নন এমপিও ভূক্ত ওই মাদ্রাসাটি দরজা জানালা ও ঘর থাকলেও নিয়মিত কোন ছাত্রছাত্রী নেই ক্লাসে। ফলে কোন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় ফরম ফিলাপ করেছে তা বলতে পারেন না স্থানীয়রা।

জানা গেছে চলতি দাখিল পরীক্ষায় ১৯টি মাদ্রাসার ৫০৪ জন পরীক্ষার্থী শাহবাজার এ এইচ ফাজিল মাদ্রাসায় পরীক্ষা কেন্দ্রে অংশগ্রহন করেন। তার মধ্যে উত্তর কুটিচন্দ্রখানা দাখিল মাদ্রাসার ৭জন পরীক্ষার্থী ছিল ওই কেন্দ্রে। প্রথম দিন কুরআন মজিদ ও তাজভিদ ও শনিবার অংক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। দুইটি পরীক্ষায় অতিবাহিত হলে কোন শিক্ষার্থী পরীক্ষা কে›দ্রে প্রবেশ করেনি। ফলে তাদের রোল নং পরীক্ষা কেন্দ্রের ৭ কক্ষে বেঞ্চে বসানো হলেও অন্যান্য পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিলেও ফাকা পড়ে আছে তাদের সিট।

ওই এলাকায় বসবাসকারী হয়রত আলী ও সুলতান মিয়া জানান নন এমপিও ভূক্ত মাদ্রাসাটি হওয়ায় শিক্ষকরা তেমন আসেন না। তবে দরজা জানালা ও ঘর আছে। নিয়মিত কোন ছাত্রী নাই।
ওই মাদ্রাসার সুপার মজাহার আলী সাথে কথা হলে তিনি জানান, পরীক্ষার্থীরা বিবাহি হওয়ায় কেউই পরীক্ষা অংশগ্রহন করেনি। আমি চেষ্টা করেছি, তাও আসেনি।

এ প্রসঙ্গে কেন্দ্র সচিব আবুল কাশেম সরকার বলেন উত্তর কুটিচন্দ্রখানা দাখিল মাদ্রাসার ৭জন পরীক্ষার্থী অনু-উপস্থিত থাকায় একাধিকবার সুপারকে মোবাইল ফোনে কল দেয়া হয়েছে কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি।