• নভেম্বর ৩০, ২০২২ ৮:৪৪ অপরাহ্ণ

ফুলবাড়ীতে ছেলে মেয়ে দিনভর পুলিশ হেফাজতে, অতঃপর বিয়ে করে মুক্তি পেলেন

নভে ১৭, ২০২২
ফাইল ছবি

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:

গভীর রাতে বিধবা নারীর ঘরে আপত্তিকর অবস্থায় এলাকাবাসীর হাতে আটক হন এনামুল নামের এক যুবক। তিনি কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার বড়লই ফকিরপাড়া গ্রামের মৃত আবুবকরের ছেলে এনামুল হক(৪০)।  ৯৯৯ মারফত সংবাদ পেয়ে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ১৬ নভেম্বর মঙ্গলবার সকালে এনামুলকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। সারাদিন থানা হেফাজতে রাখা হয় তাকে। তারপর এলাকার মাতব্বররা দিনব্যাপি মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে আপোষ রফা করার চেষ্টা করলেও বিয়ের দাবীতে অনড় থাকেন ওই বিধবা নারী ঝরনা বেগম। দিনশেষে বিয়েতে রাজী হলে যুবককে ১৬ নভেম্বর রাতে তার অভিভাবকের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। 

স্থানীয়রা জানান, বড়লই মিয়াজি পাড়া গ্রামের মৃত ফজলুল হকের বিধবা ঝরনা বেগম (৪০) এর সাথে দীর্ঘদিন থেকে পাশ্ববর্তী ফকিরপাড়া গ্রামের এনামুল হকের পরকীয়ায় প্রেম চলছিল। এ অবস্থায় গত সোমবার রাতে প্রেমিকার সাথে মেলামেশা করতে গেলে আপত্তিকর অবস্থায় এলাকাবাসীর হাতে  আটক হন তিনি। 

ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাহাবুল হক বলেন, আমি উপস্থিত ছিলাম না, শুনেছি ৩ লাখ টাকা দেনমোহরে রাতেই তাদের বিয়ে হয়েছে। 

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) সারওয়ার পারভেজ জানান, ওই নারীর অভিযোগ না থাকায় এবং ছেলে বিয়েতে রাজী হওয়ায় চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে ছেলেকে অভিভাবকের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। পরে রাতেই তাদের বিবাহ সম্পন্ন হয় তারা এখন বৈধ স্বামী – স্ত্রী।