• সোম. জুন ২৭, ২০২২

চিলমারীতে নিম্নমানের ইট দিয়ে নির্মিত হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর

আগ ৩, ২০২১

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:
চিলমারীতে ভূমি ও গৃহহীন মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে নিম্নমানের ইট দিয়ে। ঘরের নেই কোন ভিত্তিও। ইটের সাথে সিমেন্টের ভাগও কম দেওয়া হচ্ছে। কাজের নেই সঠিক তদারকি। এ কাজে অনিয়ম আর দুর্নীতির আশ্রয় নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। ঘর বুঝে পাওয়ার আগেই দুশ্চিতায় পড়েছেন সুবিধাভুগিরা। তবে, ঘর নির্মাণে নিম্নমানের ইট ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না বলে আশ্বাস দিয়েছেন চিলমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার।
জানা গেছে, নেই জমি, নেই ভালো একটি থাকার ঘর। সেই সকল মানুষকে জমিসহ ঘর প্রদানে এগিয়ে আসেন সরকার। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে ভুমি ও গৃহহীন মানুষের জন্য জমিসহ ঘর তৈরি করে দেওয়ার সিন্ধান্ত নেন আওয়ামী লীগ সরকার। সেই মোতাবেক প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসাবে নির্মান করা হয় খাস জমিতে পাকা ঘর। এরই পেক্ষিতে কুড়িগ্রামের চিলমারীতেও ৪২০ ঘরের বরাদ্দ দেওয়া হয়। এরই মধ্যে বেশ কিছু ঘর নির্মান করা হয়েছে। নির্মিত ঘর গুলো হস্তান্তর করা হয়েছে সুবিধাভুগিদের কাছে। বাকি ঘর নির্মাণে নিম্নমানের ইট ব্যবহার করা হচ্ছে। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার সরেজমিন উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের তেলিপাড়া মন্ডলপাড়া এলাকায় গিয়ে দেখা যায় সেখানে ১৪টি ঘরের কাজ শুরু হয়েছে। ও নির্মাণকাজে ব্যবহার করা হচ্ছে নিম্নমানের ইট ও খোয়া। শুধু তাই নয় নতুন মাটি ভরাট করেই ভিত্তি ছাড়াই উঠানো হচ্ছে ঘরগুলো। এবিষয়ে জানতে চাইলে এলাকাবাসীর অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বালিমাটি ফেলিয়ে কাজ শুরু করেছে। দেওয়া হচ্ছে নিম্নমানের ইট। আবার সিমেন্টের পরিমানও কম দেওয়া হচ্ছে। তারা আরো জানান, নতুন মাটিতে ভিত্তি ছাড়াই ঘর তৈরির কারনে অতিবৃষ্টি বা বন্যা হলে ভেঙ্গে পড়ার সম্ভবনা রয়েছে। ইটের মান ভালো নয় স্বীকার করে মিস্ত্রিরা জানান, আমরা কামলা আমরা কি করবো। একটি সূত্রে জানা গেছে, দর কম দিয়ে ইট ক্রয় করার কারনে নিম্নমানের ইট দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে কথা হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহবুবুর রহমান বলেন, ঘরে নিম্নমানের ইট দেওয়ার কোন সুয়োগ নেই। যেগুলো খারাপ ইট এসেছে তা ফিরিয়ে দেওয়া হবে। সঠিকভাবে কাজ শেষ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।